অটোয়া, সোমবার ২৩ মে, ২০২২
অনিকেত মহাপাত্র-এর দু’টি কবিতা

সহজ মাটি 
পৃথিবী আর থাকবার মতো 
কতদিন!
দূরায়ণ, দূরায়ণ 
এতেই আসবে আলো, বাঁচবে প্রাণ!
চুম্বনের স্বাধীনতাও গেছে 
চটজলদির ঘাটে হঠাৎ 
পা পিছলোয়, 
আদরের নৌকা দাঁড়ায় না, 
যেদিন দেহের সব রক্ত প্রায় 
মুখে এসে জমা হয়েছিল 
উত্তেজনা, উত্তাপ... 
সব, সব, সবটুকু 
নেবার, উজাড় করবার, 
দিনেরা মৃত্যুর মিছিলে, 
আসুন নতুন গ্রহ গড়ি 
ইকড়ি মিকড়ি খেলার মত 
সহজ একটা পৃথিবী 
সবই গ্রহের ফের 
আপনি কে রাহু? 
আপনার স্টেটাস এখনও ঝুলে 
দুলতে থাকুন 
আমরা সহজ মাটির দেশ গড়ি...

এই আকাশে আমার মুক্তি 
কাশ, ভালো করে মরতে চাওয়ার সঙ্গে 
আকাশ জড়িয়ে 
আত্ম হত্যাও বলতে পারেন 
স্বপ্নটা একটু অন্যরকম 
একটু পয়সাকড়ি হলে 
ভালো করে একটা মরতে, 
মহাকাশে গিয়ে টুক করে যান থেকে বেরিয়ে যান 
প্রযুক্তিকে সেই ভাবে সাজান 
দেহ আপনার ক্রমাগত ঘুরতে থাকবে 
পচবে না, নষ্ট হবে না 
অনবদ্য প্রাণহীন বেঁচে থাকা 
দেহের 
যদি ছেঁড়ে টুকরো টুকরো হয়ে 
আকাশগঙ্গা জুড়ে, মহাকাল ছুঁয়ে 
পয়সাকড়ি হলে অমৃতের স্বপ্ন 
মৃত্যু তখনও প্রতিরূপ 
মৃত্যুবাসা, আকাঙ্ক্ষার চাষ 
আকাশ দেখতে দেখতে, মরে গিয়ে 
তারা হয়ে যাওয়া 
কার্নিশ কখনও মহাকাশ যান 
শারাদ হয়ে যায় দিব্য রজ্জু l

অনিকেত মহাপাত্র। কলকাতা