অটোয়া, শুক্রবার ২০ মে, ২০২২
অমৃতে অন্ধকারে - নীপা চৌধুরী

তুমি ডাকলে চলে আসবো   
মেঘ বৃষ্টি প্লাবনে, তুষার ঝড়ে  দুমড়ে 
মুচড়ে যাওয়া বন্ধ পথ ঘাট পেরিয়ে
কিছুই মানব না  আসুক কোনো ভয়ংকর জলোচ্ছ্বাস সিডর কিংবা সুনামির আঘাত 
তুমি ডাকলেই চলে আসবো
শোনো তবে আসবো কখন 
নামবে যখন কৃষ্ণ কালো আধাঁর
নীল আকাশের বুকে রিক্তবক্ষ জুড়ে 
থাকবে না কোনো নক্ষত্রের মেলা  

তুমি ডাকলেই চলে আসবো    
কখন আসবো জানতে চাও
যখন মসৃণ সন্ধার নীহারিকা
অপলক তাকিয়ে দেখবে আমাকে
উষ্ণীষ উষ্ণ গভীর নেশা ঘোরে

তুমি ডাকলেই চলে আসবো
যখন লাভা গলে আগ্নেয়গিরির অগ্নুৎপাতে পাহাড়ের পাদদেশে
ঘুঘুর গুঞ্জন শোনা যায় এখানে সেখানে  
বাজপাখির পালক সুবাতাসে খসে পড়ে 

তুমি ডাকলেই চলে আসবো
নির্ঘুম নয়নে যখন বন্দী হবে রাত
আমার উত্তাল বুকে নীরব নিমেষে
উঠবে নেচে ভোরের উষ্ণ তুষার হাওয়া  
ঘাসের ডগায় জমা শিশির কণা

তুমি ডাকলেই চলে আসবো
আসবো আমি তখন
মূর্ছিত জ্যোৎস্নার পরে- সাঁঝের আলো জ্বেলে
গায়ে নীলাম্বরী জড়িয়ে- সন্ধ্যামালতীর গন্ধ মেখে
তুলসীদাসী তুলসীতলায় পূজা  দিবে এমন সময় 

আসবো চলে তুমি ডাকলেই
স্বপ্নের ঘরে আজ উড়িয়ে দিবো পাল 
সাধ সাধনা  মিটিয়ে নিবো আজ নয় কাল 
পাওয়ার বাসনা বহুদিন আমার
উড়াল মেঘে ঢাকা প্রেম বহুকাল

তুমি ডাকলেই চলে আসবো
কিচ্ছুটি জানতে দিবো না এটাই ইচ্ছে
অসার দেহে আরতি আমার - অন্তরঙ্গ আলাপন
উচ্ছ্বাস উঠেছে দক্ষিণ সাগরে- অগ্নিবর্ষী শ্বাস
আত্নীয় অন্ধকারে একান্ত ঘনিষ্ঠ হবোই আাজ
শোনো তবে আসবো কখন-
আসবো চলে তুমি ডাকলেই- বরফ গলা রাতে
এমন সময় নিঝুম রাতের কোমল কোলে  
একান্তই একা- তেমার তন্দ্রাছন্ন দেহের ভাঁজে ভাঁজে নামবে বৈশাখী এলো ঝড়

সারা দেহে জ্বলবে অনির্বাণ আগুনের
লহরী দাউ দাউ
পুড়ে ছাড়খার করবো নিমেষে 
তোমার রক্তিম দেহ বাগান অবশেষে
দীর্ঘ গাঢ় চুম্বনে আঁকবো দু'জন ফের   
সংগোপনে আপন চিত্রকল্প 

তখন হীম-শীতল কাতর অঙ্গে
শূর্মা কালো চোখে দেখবে ভুবন উজাড় বিস্মৃত তোমার উষ্ণ ঠোঁটের কোণে চুম্বন
স্বপ্ন তোমার ভ্রমর কালো আঁখি জুড়ে
নরম আদরে বলবে আমায়, এসো-
ধরো হাত দুটি আমার আলতো করে চেপে

আমি আসবো কখন- ধূসররঙের রাতে
বৃষ্টির পরে- নতুন পাতায় শিহরণ জাগায়
এমন তুলতুলে নরম মাটির দেহে
হৃদয় চোখে দেখবে কোনো বিরহ আর নেই
ভালোবাসার বাতাসে সব উধাও 
অন্ধকূপ ছেড়ে চলে গেছে কোথায়    
কেউ জানেনা আমি ও জানিনা
এমনটা জেনে  লাগে ভীষণ ভালো

আবার চুলের ঘ্রানে বদ্ধ মাতাল হবে
দু- হাতের অপূর্ব কারুকাজে স্পর্শে
ছু্ঁয়ে ছুঁয়ে দিশেহারা করবে আমাকে
মাদকতা অনুভবে তৃষ্ণার থালায় 
বারবার আমাকেই পাবে আমাকেই

এক আশ্চর্য শিহরণে কেঁপে উঠবে
হৃদয়ের খোলা জানালা প্রবল সুখে
তারপর কিছুটা সময় এগিয়ে যাবে 
গল্প আড্ডায় মেতে তোমার আমার
হাসির ঢেউ উঁচিয়ে স্বাগত জানানো হবে  

গোলাপ ঠোঁটের কোণে ঘুরতে থাকবে
আজ ঘটে যাওয়া অভিনব প্রেমের স্মৃতি আর স্যাতস্যাতে ভেজা মাটির সোধা গন্ধে
আবেগ উঁচিয়ে বলতে থাকবে 
প্রেমে পড়বো প্রেমে পড়বো 
বারবার তোমার আমি।        

নীপা চৌধুরী
ঢাকা, বাংলাদেশ।