অটোয়া, শনিবার ২১ মে, ২০২২
উপাখ্যান - রঞ্জন চক্রবর্ত্তী

রকমই ঠিক ছিল, একদিন শপথ নিয়ে আমরা
রক্ষা করব
আমাদের পিতৃপুরুষের ঐতিহ্য, সংস্কার ও
আমাদের 
উত্তরাধিকারসূত্রে প্রাপ্ত ইতিহাস --
আশৈশব পরিচিত এই পৃথিবী পুনরায় ফিরে পাবে
তার লুপ্ত অরণ্যভূমি

এরকমই ঠিক ছিল, জাতি-ধর্ম-বর্ণ নিবিশেষে একদিন এই পৃথিবী
প্রকৃত মানুষদের হবে,
তা সত্বেও খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থানের জন্যএবং অস্তিত্ব রক্ষার তাগিদে
প্রতিনিয়ত 
জারি থাকে কঠিন জীবনসংগ্রাম --
প্রবহমান সময় এগিয়ে চলে নিজের নিয়মে
যোগ্যতমের উদবর্তন, পরাজিত প্রজাতি এভাবেইবিলুপ্তির পথে 

এরকমই ঠিক ছিল, নদী-ফল-ফুল-ধানক্ষেত-লতাপাতা আর অরণ্য নিয়ে
কেটে যাবে নশ্বর মানবজীবন,
সময়ের পথে হাতে হাত রেখে আলোর উৎসের দিকে হেঁটে যাবে
সকল মানুষ,
নিত্যকার জীবনের ক্লেদ ধুয়ে যাবে পুণ্যতোয়া স্রোতস্বিনীর জলে --
ইতিহাসের পাতায় সেকথা লেখা থাকবে সোনার অক্ষরে

অথচ দীর্ঘতর হয়সময়ের অপ্রত্যক্ষ ছায়া
অথচ দিনশেষে মিলেমিশে একাকার হয়ে যায় পাপ আর পুণ্যের হিসেব
অথচ একমাত্র সত্য আমাদের বেঁচে থাকা এবং প্রাত্যহিক জীবনযাপন

রঞ্জন চক্রবর্ত্তী। কলকাতা