অটোয়া, শুক্রবার ২০ মে, ২০২২
প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল-এর কবিতা

দাগ
রম নিঃশ্বাসে মুছে দিই 
ওই হালকা অপারগ দাগ।
হাওয়ায় হাওয়ায় বায়বীয় হয়ে যাবে কখন,
তখন তুমি হাত রেখো হাতে!
নরম ছোঁয়াটা লেগে থাকবে অনেকক্ষণ 
নিঃশ্বাসে নয় মনের পরতে পরতে।
সে এক পরম অনুভূতির ছোঁয়া,
মোছা যাবেনা তখন;
আলো আঁধারের অনুভূতি এক 
সীমারেখায় দাঁড়িয়ে পড়বে কিছুক্ষণ। 
তখন গরম শ্বাসে ভরিয়ে দিও
সে এক বিষন্ন জীবন।

ওপারের বাড়িগুলো 
পারের বাড়িগুলো 
ভোরের কুয়াশা ঝেড়েফেলে
গায়ে মাখছিল মেঘভাঙা রোদ্দুর।
নির্বোধের মতো দমকা ঝোড়ো হাওয়া 
তাণ্ডব নাচ নাচছিল খোড়োচালের উপর।
মাঝে মাঝে ওলটপালট করেছে সিঁথি 
নির্দিষ্ট নিয়মের ধার না ধেরে।
খোড়ো ছাওনি খুলে নিয়ে 
বিবস্ত্র করেছে বাড়িকে;
আড়িপেতে শুনেছে কথোপকথন।
এখন আর ভয় নেই কোনো;
চাঁদ আর সূর্য দুজনেই 
ভাগাভাগি করে নিয়েছে সংসার।

প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল
দঃ ২৪পরগনা
পশ্চিমবঙ্গ, ভারত