অটোয়া, শনিবার ২১ মে, ২০২২
উৎসবে যাওয়া নেই - সুনির্মল বসু

তোমাদের বসন্ত উৎসবে আমায় ডেকেছিলে,বলেছিলে, একবার ফুলের মেলা দেখে যাবে,চোখের আরাম খুঁজে পাবে,
মনে পড়ে, হর্টিকালচার থেকে একদিন আমিও তোমাদের সঙ্গে চারাগাছ আনতে গিয়েছিলাম,
তোমাকে জানাই,
আমি বসন্ত উৎসবে যেতে পারছি না,
আমার সাড়ে তিন আঙ্গুল কপালে উৎসবে যোগদানের ছাড়পত্র নেই,
আমি যাই, দুর্ভাগ্যের ছায়া আমার সঙ্গে যায়,
কান্নাগুলো আমার ছায়া মাপে,
মনের চোখ দিয়ে তোমাদের ভরা ফুলের বাগান দেখি, অজস্র গোলাপ,দোপাটি, অপরাজিতা,ডালিয়া, চন্দ্রমল্লিকা ফুটে আছে,
আমার যাবার কোনো উপায় নেই,
চারদিকে সবাই ব্যর্থ লোকটাকে আঙ্গুল উঁচিয়ে দেখায়,
সফল মানুষদের ঝকঝকে আলোয় আমি দাঁড়াতে পারি না, আমাকে মানায় না,
আমার সাড়ে তিন আঙ্গুল কপালে উৎসবের ছাড়পত্র নেই,
আমি এখন আমার স্যাঁতস্যাঁতে ঘরে ইঁদুর আরশোলা ব্যাঙ নিয়ে আধো অন্ধকারে দুর্ভাগ্যের লিপিখানি হাতে নিয়ে বসে আছি,
যন্ত্রনায় কুঁকড়ে যাচ্ছি, বেঁকে যাচ্ছি,
দয়ামায়াহীন সংসার আমার দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে
নিয়েছে, স্বার্থপরতা না শেখার পরিণাম, স্বখাত সলিলে মরণ,
তোমাদের বসন্ত উৎসবে আমার যাওয়া নেই,
আমার সাড়ে তিন আঙ্গুল কপালে উৎসবের ছাড়পত্র নেই,
আমাকে তোমরা মাফ করে দিও।

সুনির্মল বসু
নবপল্লী, বাটানগর, দক্ষিণ 24 পরগনা
কলকাতা, পশ্চিমবঙ্গ, ভারত