অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল এর দু'টি কবিতা

নীল বেদনায়
বিছানার চাদর সরাতে চাইনি কখনো 
আতরে মাখানো আছে হৃদপিণ্ডের স্পন্দন
স্মৃতির সরনী ভেসে ওঠে সকাল বিকাল
রাতের আঁধার খুশিতে ডগমগ
ওই দেখো চেয়ে আছে নিশুতি রাত।

ওখানে এখনো শরীর নিলামে ওঠে 
লালে লাল চুম্বন কে কার ঠোঁটে!
অচেনা শরীরী ভাষা নীল রঙে আঁকা 
কামজ আতর ঘামে তাই শুয়ে থাকা 
নীল বেদনায় আঁকা ওই সবার প্রভাত।

অথচ,তাদের ছিল সেই ঘরদোর,
নিকানো উঠোন সেই সাঁঝবাতি জ্বালা
শৈশব, ভালবাসা খেলনার বাটি 
ছিল তো কতইনা খুব পরিপাটি 
বেদনার রসে রঙে হয়েছে আঁতাত।

মনের গভীরে 
মি ফেলে যেতে পারি 
যা কিছু চোখের সামনে আছে 
এই ঘর,এই সংসার,
আমার আবাল‍্যের সাথী 
পাখি ডাকা ভোর,
সূর্যের বর্নালী আঁকা চোখ;
মনের উপর চেপে বসা
একরাশ চাপ।

শুধু পারিনা ফেলতে 
মায়ের কষ্ট,বাবার শ্রম,
আর তোমার স্মৃতি এঁকে রাখা
ঝুলন্ত শাড়ির চাঁদোয়া।
যেগুলো আমার মনের গভীরে 
গভীর দাগ কেটে বসে আছে এখনো।

প্রবীর রঞ্জন মণ্ডল 
দঃ২৪পরগনা
পশ্চিমবঙ্গ,ভারত।