অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
বিশুদ্ধ আঁচল - মানসী সাহা

নীল আকাশ ভরা পূর্ণিমার আলো 
নক্ষত্রের পথ দেখায় তারই রুপালি আভা  
চাঁদের বুকের ছায়ায় খুঁজি 
তোমার মুখের মায়া -  

কী শান্ত আর  দীপ্তিময় সেই মুখ!
স্থির নিস্তব্ধতায় - 
শুষ্ক পাতাহীন শাখাদের জাল ফুঁড়ে গলে গলে পরে জোছনা 
শুধু শূন্যতা চারিদিকে
চারিদিকে মৃত্যু, চারিদিকে শব। 
শিশু, যুবা, প্রৌঢ় সবাই মৃত,    
কোথাও কেউ নেই। 
ঝিঁঝিঁ পোকার শব্দ, কাঠবিড়ালির ছুটোছুটি, কুকুরের কান্না -  
নীরবতার চাদরে ঢাকা পড়ে থাকে সব। 
বুকের ভিতর শুধু অবিরাম রক্ত ক্ষরণ
শুধু হাহাকার।  

নিশ্ছিদ্র অন্ধকার ভেদ করে 
শ্বেতহস্তি বয়ে আনে জীবনের পদ্ম, 
লুম্বিনী উদ্যানে ফুটে শান্তির মন্ত্র।  
মৃতের পাশে বেঁচে থাকে স্বল্পায়ু অমৃত, 
অন্তরীণ ধ্যানে ধীরে ধীরে মুছে যায় আবিলতা।   
এভাবেই জলের শব্দের মতো বেঁচে থাকে লাইলাকের গন্ধ 
আর পূর্ণিমার রোগাক্রান্ত বাতাসে 
উড়ে শুধু তোমার বিশুদ্ধ আঁচল। 

মানসী সাহা 
কিংস্টন, কানাডা