অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
পার্থ সারথী চৌধুরী’র দু’টি কবিতা

চশমার ফ্রেম
শমার ফ্রেম পুরানো হয়ে গিয়েছে
অনেকদিন হয়ে গেলো বদলাইনি 
তিনশত টাকায় কেনা তিন বৎসর আগে 
ফ্রেমের ব্রীজে জং ধরেছে
চশমার ফ্রেম বদলাবো বলে ভাবছি।
ফ্রেমের সাথে চশমার গ্লাস বদলাবো 
ভাবছি পাওয়ার গ্লাস বদলিয়ে   
রঙিন গ্লাস লাগাব 
রঙিন গ্লাসে পাওয়ার বদলাতে হয় না
পাওয়ার গ্লাসে পাওয়ার বদলাতে হয়।

ইদানিং আমার বামচোখ বুজে আসে 
ডানচোখ অসম্ভব তিক্ষ্ণতায় দেখে 
দুর দেখে 
সরল রেখায় দেখে অনেক দুরে 
বক্ররেখায় তাকায় অনেক দুরে। 
চশমায় স্টিল বদলিয়ে কার্বন ফ্রেম লাগাবো 
চশমার ফ্রেমের ব্রিজে জং লাগবে না।
চশমার ফ্রেম বদলাবো বলে ভাবছি।  

সুখ
কালের সূর্যিটা উঠার সাথে সাথে 
দুর্বার ডগায় ডগায় সূর্যেরা হাসছিল। 
বেলা গড়িয়েছে 
তখন ছিল দুপুর, দমকা হাওয়া 
পলায়নপর, ব‍্যস্ত ত্রস্ত 
কচি ঘাসের ফাঁকে ফাঁকে খোঁজছিল 
মাঝ দুপুরের লাল সূর্য। 
সেই যে লুকালো দুষ্টুটি 
অনেক খোঁজার পর পাওয়া গেলো 
দু'হাতে দু'আটি দুর্বা ঘাস 
মাথার উপরে লাল সূর্য 
মুখ বন্ধ বাতাসের পানে 
নির্লিপ্ত চোখে চেয়ে আছে 
ঐ অন্বিষ্ট শয়তানটি।

পার্থ সারথী চৌধুরী। বাংলাদেশ