অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
মাসুদুল হক এর দুটি আদিবাসী কবিতা

১. মুণ্ডা প্রেমকথা
'গাছের ভিতর ফলের কথা,ফলের ভিতর গাছের কথা' জেনে নিয়ে মুণ্ডা যুবক তালের গন্ধে মাতাল হয়ে যায় 

যৌবনের ১০০০ চাঁদ পার করে কোনো কোনো রাতে 
নেশার ঘোরে মুণ্ডা ছেলেরা অবিকল শিব হয়ে ওঠে! 

জঙ্গলের বুকে নির্জন কুণ্ডীর জলে মুণ্ডা যে নারী 
স্নান করার আগে নিজের নগ্ন শরীর দেখে নেয় অভিভূত চোখে! 
দলমলা সেই নারীর প্রেমে নির্জন জঙ্গলে দলমলিয় ওঠে বার বার নির্ভিক মুণ্ডা পুরুষ! 

শাল ফুলের সৌরভে মগ্ন মুণ্ডা মেয়ে জোৎস্না রাতে
পদ্মের মতন শরীর জাগিয়ে  স্বপ্নের দেশে চলে যায়
স্বপ্নে নয় মুণ্ডা ছেলে জেগে থাকা প্রেমটুকু পেতে চায়!

যদিও প্রতিটি মুণ্ডা পুরুষ তালের নেশায় শিব ঠাকুর
আর ধারতির প্রতিটি মুণ্ডা নারী চিরায়ত পার্বতী! 

২. খুটকাট্টি গ্রামের গল্প 
গুনে ভাসতে থাকে প্রাকঅরণ্যের সবুজ
চর্বি-পোড়া গন্ধে ভরে ওঠে ধরতি
ছাইয়ে দ্রবীভূত  মানুষের চিতা !

আত্মমগ্ন দুজন মুণ্ডাছেলে-মুণ্ডামেয়ে
 টুইলার সুরে নাচতে নাচতে 
থমকে দাঁড়ায় 
ততোক্ষণে আগুনের পিচকারি 
হোলি খেলতে খেলতে 
ওদের রাঙ্গিয়ে তোলে
ওরা আগুনের হোলিতে ভিজে যায়! 

আগুনের রঙ মুছতে 
ওরা জলের কাছে যায় 
জল! জল! কোথাও নেই আগুন-মোছা জল! 

সহসা এক আগুনরঙা কালনাগিনী সাপ 
ফনায় ঢেকে ওদের নিয়ে ওড়ে !
জলের ভাড়ায় গা ডুবিয়ে কাঁকড়া ছিল ঘরে
সেইখানেই ওদের বেড়ে ওঠা 
চন্দ্রকলায় বয়স মেপে সমান হয়ে চলা
পাহাড়, নদী, পশু, পাখি সব কিছুতেই
অংশীদারি সমান! একটা গ্রাম খুটকাট্টি
       সাম্যবাদের প্রমাণ 

সেই থেকে চন্দ্র হাতে স্বপ্ন নিয়ে মুণ্ডাজাতি জাগে! 

মাসুদুল হক। বাংলাদেশ