অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
জহুরুল ইসলাম এর দু'টি কবিতা

বেহুলা মন
বেহুলা মন কেঁদে বেড়ায়
আনাচে- কানাচে।
রাতের সাগর শেষে অপেক্ষায় থাকি
দিবা পূর্ণিমার।

হিমেল হাওয়ার পেটে বাসা বেঁধে রই
নরম আলোয়।
অসহ্য সবুর 
যন্ত্রণায় পুড়ে মারে।

আলোর সাগরে ভেসে- চতুর্দশী চাঁদ
চরম টগবগ করে।
ক্লান্ত আঁখি পুড়ে যায় রূপালি আগুনে,
সারাদিন সারারাত।

এ বেহুলা মন যন্ত্রণায়
কাঁদে অঝর ধারায়।

বিবর্ণ গোলাপ
গোলাপের বাগানে গেলেই ভাসে গোলাপের মুখ 
তীব্র রৌদ্রে ধোয়া রক্ত বর্ণ।
সে গোধূলির আকাশ,
তবুও কোমল।

ঘাসের কচি ডাঁটার মতো নরম হৃদয়ে তার-
জেগেছিলো প্রেম- সাধ-
বিবিধ বাসনা,
যা ছিলো ভোরের শিশিরের মতোই খুব টলমলে।

লাল গোলাপের লাল যেনো ধুয়ে গেছে,
হয়েছে হলুদ- সাদা-
গন্ধ গেছে কবে-
আর প্রজাপতি আসে নাকো।

জহুরুল ইসলাম
মির্জাপুর, দাপুনিয়া
পাবনা সদর, পাবনা