অটোয়া, সোমবার ২৩ মে, ২০২২
কালান্তর - ফরিদ তালুকদার

নের সুজন ব্যাথার মতো স্বাধীন  এখানে মেঘেদের বসবাস
চিরল রোদের ওমে—
লেডি বাগের প্রেম উৎসব মাতম তুলে সবুজ ঘাসের মাথায়!

সভ্যতার শোকেসে বন্দী মানুষের সুখ, বৃষ্টি ঝরে
খুব বেশী  উদোম আজকাল মাথার উপরে আকাশ—
উড়িয়ে নিয়ে যায় কাফনের শ্বেত শুভ্র সব অবগুণ্ঠন! 

দহনের গল্প শুনতে চাইলে একদিন—
হৃদয়ের সবটা ভূমি দখল করে নেয় আগুন
হঠাৎ নিঃস্ব আমি তাকে বলতে পারিনি
বহুদিন ই তো  হলো—
জলের শরীরে তোমাকে সেচেই হয় আমার যৌবনের নির্বাণ! 

নিদারুণ বাণে বৃষ্টি বিকেল—
পুরনো সেই সংলাপ তোলে অশ্বত্থের দূর পাতায়
ধ্বসে পড়া গবাক্ষ পথে দিক হারানো বাতাস বলে যায়—
তোমার খোলা চুলে এখনো সিক্ত গোলাপের গন্ধ!
উপেক্ষার অনন্ত চেষ্টায়—
আমি গহীনে হারিয়ে যাওয়া সেই তীরন্দাজের গল্প পড়ি—
যে কিনা অরণ্যকে শুধিয়েছিলো তার আরাধ্য পথের সন্ধান!

ভুল ছিলোনা কিছুই, তবুও ভুল—
জারুলের সব রঙ কেড়ে নিলে রাতের আকাশ 
শেকড় সমেত উঠে আসে ক্ষমাহীন কিছু যৌথ সময় 
বলে কষ্টভুক—
পৃথিবীতে এখন আর তোমার বলে কিছু নেই! 
ভালোবাসা?—
সে তো ছিলো শুধু এক ঋতুবতী জোছনার মৌসুমী  বিলাপ!

ধূসর পৃথিবীর কোনো বাঁকে আমি তখন জেগে উঠি—
এক অভিশপ্ত প্রমিথিউস!!

ফরিদ তালুকদার। কানাডা