অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
রামচরণের অবসর - শক্তিপদ পণ্ডিত

ল্লিশ বছর চাকরি করা নয়ত মুখের কথা,
তবুওতো পেট ভরেনি ধুত্তেরি ছাতার মাথা।
মুখ ঝামটা, গালাগাল ও তিরস্কার শুনে শুনে,
হুকুম তামিল, খবরদারির দিন কেটেছে গুনে !
এখন রমচরণের অবসর দিন কাটবে মহাসুখে,
আয়েশ করবে ঘুরবে-ফিরবে থাকবে হাসিমুখে।
আজ অফিসের নেই তাড়া, নেই কোন কড়াকড়ি,
নরম বিছানায় আলসেমিতে খাচ্ছিল গড়াগড়ি।
দুঃখের কথা ভাবছিল যখন রামচরণ তেওয়ারি,
খিচড়ে দিল মেজাজখানা দেহাতি গিন্নি পেয়ারী।
আরাম হারাম হ্যায় ব'লে বউ রূপ ধরে রণচণ্ডি,
রে-রে করে উঠল তেড়ে পার হয় ভাল'র গণ্ডি।
আজ থেকে করবে তুমি রেশন-দোকান-বাজার,
অবসরকালে করে সবাই আছে দৃষ্টান্ত হাজার।
মর্নিং ওয়াক করবে রোজ ভোরের বেলা উঠে,
কয়েক চক্কর মারো গিয়ে পার্কটায় যাও ছুটে।
আজ থেকে শুনতে হবে তোমায় আমার কথা,
শুনে রাখ দীর্ঘকাল ঘরে ঘরে চলছে এই প্রথা।
রামচরণ বলে, এতকিছু করতে হবে তাই বলে?
গিন্নি বলে - হ্যাঁ, এসবই করতে হয় পুরুষ হলে।

শক্তিপদ পণ্ডিত। কলকাতা