অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
তৃতীয় ঢেউ - এস ডি সুব্রত

হামারী করোনা ভাইরাস 
কিছুতেই ছাড়ছে না পিছু
নিদারুন সময়ের নিষ্ঠুর যাঁতাকলে
নিরুপায় মানুষ গুলো
বদলে যাচ্ছে চোখের সামনে
জীবিকার জন্যে পেটের ক্ষুধায় কেমন করে!
সকালে হাঁটতে বেরিয়ে
যে হকারকে দেখতাম পত্রিকা হাতে
দ্রুত পায়ে ছুটছে
সে এখন সবজির ঠেলা নিয়ে পাড়ায় পাড়ায়, বিহারী পয়েন্টের সেই
চমৎকার রুটি হালিম বানানো হোটেলটাতে
কাল বিকেলে দেখলাম মোরগ বেঁচে,
হোটেল বয় আলম নেমেছে
কাঁঠাল বিক্রির ব্যবসায়
আর চা বিক্রতা হেলাল এখন
মাস্ক, গ্লাভস, স্যানিটাইজার বেঁচে ট্রাফিক পয়েন্টে,
ডি এস রোডের নামকরা
ডিপার্টমেন্টাল স্টোর মাছুম ট্রেডার্স -এ
এখন আলু পেঁয়াজ তেলও বিক্রি করে,
প্রাইভেট স্কুলের শিক্ষক আহমেদ
মুদির দোকানদারি করে
বেসরকারি ফার্মের চাকুরে সুজন
এখন ঢাকা ছেড়ে গ্রামে
হাওরে মাছ ধরে,
কুটুম বাড়ি  পানসি রেস্টুরেন্ট এখন
নিস্তব্ধ ভুতুরে  বাড়ি মনে হয়
সময়ের প্রয়োজনে সবকিছু যেন
বদলে যাচ্ছে কেমন করে!
করোনার তৃতীয় ঢেউ 
চোখ রাঙাচ্ছে আবার নতুন করে 
সুরমার  পাড়ে জোছনার শহরে এখন
অষ্টপ্রহর অমাবস্যা খেলা করে
বিধাতা তোমার করুন খেলায় 
হাহাকার কান্না চারিদিকে।

এস ডি সুব্রত
শাল্লা, সুনামগঞ্জ
বাংলাদেশ