অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
কাজল দত্ত-র দু'টি কবিতা

খেলার চ্ছলে
কখন্ড ধূসর মেঘ
খোলা জানালার ওপারে
নিঃশব্দে দৃষ্টি নিবদ্ধ
বৃষ্টি ঝরে মনের ঘরে।

অচলা দৃষ্টি আকাশ হতে
আরও আরও গভীরে,
শূন্য হতে আরও মহাশূন্যে_
নিরন্তর শূণ্যতা অন্তরে।

সকৌতুক হাস্য হৃদয়,আশ্চর্য
অদ্ভুত এই ভাঙা গড়ার খেলা,
নীলিমায় কখনো সাদা মেঘ
কখনোবা কালো মেঘের দলা।

ব্যথার চিহ্ন প্রকট,তবুও হাসি
সৃষ্টি লয়ের দোলাচলে
একি অপূর্ব সৃষ্টি তোমার,হাসি
কান্নার জীবন বাঁচে খেলাচ্ছলে।

অভিধানিক
ভিধানের দীর্ণ কপাট
শব্দেরা সব মৃত।
ইচ্ছে নদীর মরা ঢেউ গুলো
গণপতির ছিন্ন মস্তকে-
পাড় ভাঙে
অনবরত।
শ্যাওলা দামে স্রোত 
থমকে যায়, পলি জমে বুকে।
ঝিঁঝিঁ পোকার ডাক
বৃষ্টি ভেজা রাত,
তোমার কথা মনে পড়ে
তখন তুমি আকাশ গঙ্গায়
নিদ্রাহীন চোখে, স্বপন চারিতা
ঘুম আসে না
তোমায় স্বপ্ন দেখবো বলে।

কাজল দত্ত
বসিরহাট, পশ্চিমবঙ্গ