অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
পরিবর্তন - জাহিদ হাসান

ভাবনার জানালা খুলে স্মৃতির আলোয় স্থির আয়নায় নিজের প্রতিবিম্ব দেখে প্রতিনিয়তই অবাক হয়ে যাচ্ছি!
প্রকৃতির বৈচিত্র্য রূপ-সৌন্দর্য,অনুভূতি আর ভালোবাসার স্পর্শ পেয়েও ক্রমাগত বদলে যাওয়ার চিহ্নগুলি জানালার গ্লাসে শুকিয়ে যাওয়া পানির দাগের মতো ক্রমান্বয়ে স্পষ্ট হয়ে উঠছে।

অথচ,তোমার দেওয়া ভালোবাসার অজস্র পালকে সৃজিত পাখায় ভর করে সমুদ্র পারি দেওয়ার তীব্র ইচ্ছে আমার ছিলো।
ছিলো সে পাখায় অনন্তকাল হৃদপিণ্ড মুড়িয়ে রাখার এক আকাশ অঙ্কিত রঙিন স্বপ্ন।
ছিলো ভাবনায় কুড়ানো অগণিত অপেক্ষারত না বলা ইচ্ছে,কিন্তু সময়ের আবর্তনে সেসব আজ শুধুই ভাবনা।

প্রিয়তমা,পালক ঝরা পাখির কষ্ট তুমি বুঝো?
দেখেছো তার কষ্টে আবৃত সে সময়ের আর্তনাদ?
অনুভব করতে পারো?তার হৃদয়ের কম্পন,রক্তপ্রবাহ,নিক্ষিপ্ত দৃষ্টি আর রুদ্ধশ্বাসের অস্থির প্রবাহের অনুভূতি।

জানি উত্তর মিলবেনা!
তুমি আজ মোহনা প্রাপ্ত নির্ঝর,হয়তো মুক্তার দেখাও তুমি পাবে।
তাই বলে,সূচনা লগ্নে স্পর্শীত ক্ষুদ্র নুড়ি কণার কথা ভুলতে পারোনা,ভুলতে পারোনা তার বুকে দর্পণ সৃষ্টির সে মূহুর্ত।

দুঃখ!পাতা ঝরে গেছে আর বসন্ত এলোনা!
বৃক্ষ যে শুষ্কতায় আবৃত,বৈশিষ্ট্যও তার অনুরূপ।

জাহিদ হাসান
রংপুর,বাংলাদেশ