অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
হামিদুল ইসলাম এর দু'টি কবিতা

চেতন প্রহর 
লের সহজ শর্তগুলো ভেঙে দেখি 
তীব্র খরায় শুকিয়ে উঠছে মাটি
ছায়াহীন বটগাছ 
নিঃসঙ্গ দুপুর।।

আমাদের সম্পর্কের মাঝে মরচে 
জলডোবা পানা পুকুর 
অন্ধকার কারাবাসে আজও খুঁজি শৈশব 
প্রিয়াহীন রাত।।

জলের বলিরেখায় পুড়ে যায় জীবন 
এ জীবন তপ্ত আগুন 
কামনা 
কামনার বিষ।।

জলের শর্তগুলো ভাঙছে খণ্ড খণ্ড মেঘ 
ভেঙে পড়ছে কবিতা উৎসব 
হৃদয়ে দাঁড় বইছে মাঝি 
যাত্রী বোঝাই।।

আমরা পেরিয়ে যাচ্ছি চেতন প্রহর 
হৃদয়ে নদীর ঘ্রাণ।।

বিপ্লব
তোমার হৃদয়ের গন্ধ মাখছে 
সকালের সূর্য 
শৈশবের আধ খাওয়া বাসি ভাত 
এখন যুদ্ধাস্ত্রে যুদ্ধ করে না কালনেমী ইতিহাস।।

এখন যুদ্ধ চলে মুখে মুখে 
কলমের ডগায় 
বিপ্লব ঘরে ঘরে 
বিপ্লবের নামে স্বার্থান্বেষীরা প্রতিদিন রক্ত ঝরায়।।

তবু খুঁজি বিবেক 
অনশ্বর মৃত‍্যু কাফনের উপর 
বিবর্ণ ভাবনা চাপা পড়ে রোজ 
শহীদের স্মরণ সভায়।।

ভূগোলবাড়ি খুবলে খায় স্বপ্ন 
সবুজ ঘাসে মায়া 
মায়াবী রাত পাহারা দেয় আমাদের জন্মদিন 
প্রতিদিন ভূখাপেটে বিপ্লব।।

হামিদুল ইসলাম
কুমারগঞ্জ, দক্ষিণ দিনাজপুর
পশ্চিমবঙ্গ, ভারত