অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
শীতল চট্টোপাধ্যায় এর দু'টি কবিতা

জীবনের নাম, জীবনের দাম
চোখে দেখা না গেলেও
একটা আবশ্যিক ছাঁচ লাগে
জীবন গড়ার জন্য৷
পেট ভরিয়ে দেহ গড়া আর
জ্ঞান ভরিয়ে বুদ্ধি গড়ার  নিয়মেই
মানব জীবন৷
যে জীবনেরই প্রয়োজনে সহনশীলতা বা
সইয়ে নেওয়ার আবশ্যিক কিছু
জীবনগুন অর্জন করার অনুশীলনে
অনুশীলিত হয়েই-
বুদ্ধি-জ্ঞাণের হাতিয়ার অবলম্বন ক'রে-
অসময়ের সংগে যুদ্ধ করা,
বিপদ, ভয়, আতঙ্কের কাছে নির্ভয় থাকা, জিততে শেখা,
অপ্রত্যাশিত  যে কোনো পরিস্থিতিরই একটি মূহূর্তে
একেবারে নিজেকে মূল্যহীন ভেবে নিয়ে
জীবন স্পন্দনকে তার কাছে সমর্পন না করা ৷
চির তারুন্যের সময়ের কাছে জীবন তারুন্যের
একুশ বছরের কেউ
তবুও নিজেকে হঠাৎই স্তব্ধ করে,
নিজেকে হারিয়ে দেয় এগিয়ে দিয়ে,
ক্ষমতা থেকেও নিজেকে অক্ষম করার ঔদাসীন্যে
নিরুদ্দেশ করে নিজের নাম, জীবনের দাম৷
নিজের সমস্ত সচলতাকে 
না বোঝার অচলতায় থামিয়ে নেয়,
একটি অবুঝ মুহূর্তকে আলিঙ্গন ক'রে -
অর্জিত একুশ বছরকে স্তব্ধ করে,
অজানা কারণে জীবন সত্যির সে
অধরা স্মৃতিতে বইতে থাকে৷

একদিন, আজ
কদিন ভালোবাসা হয়েছিল গান
আজ ভালোবাসা ছোঁয় অসহায় প্রাণ,
আজ ভালোবাসা দিয়ে সেবা নির্ভয়
একদিন ভালোবাসা ছিল কথাময়৷
একদিন ভালোবাসা শুধু দুই জনে
আজ ভালোবাসা রাখা সব্বার মনে,
আজ ভালোবাসা দিয়ে অপারের পার
একদিন ভালোবাসা দু'জনে সীমার৷
একদিন ভালোবাসা ছিল চোখ-ঠোঁটে
আজ ভালোবাসা সব দায়েতেই ছোটে,
আজ ভালোবাসা দেয় বুকে আশ্বাস
একদিন ভালোবাসা দু'জনেতে বাস৷
একদিন ভালোবাসা দূর থেকে কাছে
আজ ভালোবাসা যারা বিষ বয়ে বাঁচে,
আজ ভালোবাসা স্বরে আশ্বাস পাঠ
একদিন ভালোবাসা ছোট চৌকাঠ৷
একদিন ভালোবাসা হাত ধরে হাঁটা
আজ ভালোবাসা যেথা জীবনের ভাটা,
আজ ভালোবাসা নানা না-চেনার পথে
একদিন ভালোবাসা চেনা সঙ্গতে৷
একদিন ভালোবাসা ছন্দ ও তালে
আজ ভালোবাসা এই সংশয় কালে,
আজ ভালোবাসা নয় দু'জনের দৃশ্যে
একদিন ভালোবাসা চিনে ফেরা বিশ্বে৷
একদিন ভালোবাসা বাঁধা ছোট খাঁচা
আজ ভালোবাসা দিয়ে বাঁচাতেই-বাঁচা,
আজ ভালোবাসা দেয় শ্বাস জিভে-জিভে
একদিন ভালোবাসা হয়ে আদম - ইভে৷

শীতল চট্টোপাধ্যায়
জগদ্দল , উত্তর ২৪ পরগণা
ভারতবর্ষ