অটোয়া, মঙ্গলবার ২৫ জুন, ২০১৯
কবিতার ডাক – চৈতালী রায়

মি তখন গল্পের প্রেমে মত্ত-----
কবিতা ডাকলো এসে-- ভালোবেসে
বললো আমায়---ভালোবাসো---
বাসতে পারিনি ভালো তাকে।

শুনেছি---সে নাকি শুধুই জানে ছলনা 
শব্দে ছন্দে মোহের হাতছানি
আমি তো শিখিনি ছলনা কোনো---থেকেছি দূরে ভয়ে,
নির্বাসনে চেয়েছি দিতে ওসব কিছু।

কালার মোহন বাঁশি শুধু রাধাকেই জব্দ করে
তাই কি চেয়েছিল সে--সে ভাবেই যমুনা হোক আমার হৃদয় ?
দিইনি সাড়া কোনোমতে।

মোহন বাঁশি শুনিয়েছে সে রাতে
আমি কিন্তু চাইনি রাধা হতে,
দরজার বাইরে তারাগোনা দিনের অপেক্ষায়
উপেক্ষা করেছি আমি তাকে বারে বারে।

তবুও কোনো এক রাতে শুনলাম কবিতার কান্না
সে নাকি ভাসাবে দেহ-ছাই কোনো এক নদীর জলে।
সে জানতো না কি নদী আমার মন!!

ভাসলাম---ভাসলাম আমি সেদিন সেইক্ষণ
সমস্ত কবিতা-পাতা নিলাম ভরে অন্তর।

জানিনা জানিনা কেন আজও শুনি কান্না কবিতার,
আজ যে অজান্তেই দেখি আমার
গল্প পরেছে সাজ প্রেম--কবিতার।

চৈতালী রায়
কলকাতা, ইন্ডিয়া।