অটোয়া, সোমবার ২৩ মে, ২০২২
স্মৃতির জানালায় - এম ডি আজাদ

সেদিন ফাগুন সন্ধারাতে 
নদীর ঘাটে এসে, 
দিয়েছিলে একটি কথা,
গভীর ভালোবেসে! 
গেয়েছিলো নদীর পানি, 
সুন্দর একটা গান,
তোমার কন্ঠে বেরিয়ে আসে, 
সেই গানেরই তান! 
মিটিমিটি তারা জ্বলে 
পুব আকাশের তলে,
চাঁদের আলোয় মাছগুলোসব,
ভাসে নদীর জলে!
ঝিরিঝিরি ফাগুন বায়ে,
উড়ায় রাতের ধুলি,
সব ভুলিলেও তোমার কথা,
যাইনি আজও ভুলি! 
জোনাক জ্বলে থোকায় থোকায়, 
শিউলি ঝরে খসি,
স্মৃতিচারন করছি অতীত, 
বটের তলে বসি! 
ঝুলে আছে অনেক বাদুড়, 
বটের ডালে ডালে,
জোয়ার জলে বান এসেছে, 
পুবের মরা খালে! 
জীবন চলে ঘড়ির কাঁটায়,
রাত পোহালেই দিন, 
ঘুমিয়ে আছে সবাই রাতে,
আমি নিদ্রাহীন! 
আমড়া গাছে ভুতুম ডাকে,
অকল্যান এ সুর,
কাছে আছে অনেক কিছুই,
তুমি বহুদুর! 
একজীবনে সব আশা তো,
পুরন হবার নয়,
যা পাওয়া যায় তা নিয়েই যে,
খুশী থাকতে হয়! 
আঁধারকালো মেঘের পরে, 
আলো খেলা করে, 
আজকে যদি সুখ না আসে,
আসতেও পারে পরে!
জীবন ভরাই দেখবে স্বপন,
করবে অপেক্ষা, 
খুশী থেকো অল্পেই তুমি,
তোমার আছে যা! 
আশা নিয়েই মানুষ বাঁচে,
স্বপ্ন দেখে দেখে,
পাহাড় প্রমান সম্পদটাও তো,
যেতে হবে রেখে!
নিঃশ্ব যারা তাদের নেই আর,
হারানোরই ভয়,
অল্পে খুশী থাকলেই হবে,
জীবন মধুময়! 
জীবন শেষে সবার হবে, 
একই ঠিকানা, 
বিরান হবে, রংগীন তোমার, 
অট্টালিকাটা! 
পুন্য কিছু সাথে নিও,
শেষ সময়ের তরে,
নইলে কভু রক্ষা নাই আর,
গেলেও পরপারে! 

এম ডি আজাদ । ঢাকা, বাংলাদেশ