অটোয়া, শনিবার ২১ মে, ২০২২
দুঃস্বপ্নের পৃথিবী - সেলিনা শেলি

ক'শ সাতান্নব্বই সন্তানের মা
এ-ই আমাদের পৃথিবী।
যার সন্তানেরা খেলে
যেমন খুশি তেমন সাজো!
কেউ রাজা কেউ প্রজা
যাকে ইচ্ছা দেয় সাজা।
যাদের পা বকের মতো
ঠোঁট আছে লম্বা অনেক
ভোগের রাজ্যে তারাই অগ্রদূত।
যারা যন্ত্র উড়ায় পাতাল পোড়ায়
চাঁদের দেশে ঘর বাঁধতে হাত বাড়ায়
তাদের রাজ্য ভাসিয়ে নিচ্ছে
করোনার কালো স্রোত!
আজ তারা নিরুপায় আমার স্বপ্নের মতো।
যে স্বপ্নের কথা বলছি,
স্বপ্নটা শুরু সেই টুয়েন্টি নাইন্টিনের ডিসেম্বর থেকে
পৃথিবীর এক সন্তানের দুঃস্বপ্নের কথা
যে দুঃস্বপ্ন ছুঁয়েছে গোটা বিশ্ব!
সাত দশমিক তিপান্ন বিলিয়ন মানুষের চোখে
বয়ে যাচ্ছে ভয়ংকর দুঃস্বপ্নের ঘূর্ণিঝড়,
যে দুঃস্বপ্ন তোমাকে আমাকে সবাইকে
দেখিয়ে দিচ্ছে প্রিয়হীন হওয়ার করুণ দৃশ্য।
দুঃস্বপ্নে দুঃস্বপ্নে চার মাস যেন
হতে চলেছে চারশত কোটি বছর!
করোনা নামের এলিয়েনটা
চেপে ধরেছে পৃথিবীর বুক।
শ্বাসকষ্টে ভুগছে পৃথিবীর সন্তানেরা।
পৃথিবীতে থেকেও যেন
চাঁদের দেশে বেঁচে আছি।
আইসোলেশন, কোয়ারেন্টিন,লকডাউন
কেমন যেন হতাশা পূর্ণ শব্দগুলো
রেখেছে বড় পর করে,
যেন বেঁচেও মরে গেছি!
আমি দেখছি কেবল স্বপ্নের ভেতর।
এ যেন এক মৃত্যু মিছিল,
চোখের সামনেই অদৃশ্য দেবদূত
নিয়ে যাচ্ছে শত শত পৃথিবীর ফুল!
নেই বড় নেই ছোট,
সবাই যেন সমান কাতারে
নেই মই নেই সিঁড়ি,
কোথায় যাবে পথ নেই কোনও
এর উত্তর জানা নেই কারো!
না আমার না পৃথিবীর।
এর নেই কোনো সমাধান যেন!
হে বিধাতা,
তোমার সৃষ্টির এমন দশায় তুমি নীরব কেন প্রভু?
দয়া করো মহান,
আমাদের এ দুঃস্বপ্ন হতে জাগাও
পৃথিবী কোমায় চলে গেছে খোদা
পৃথিবীরে জ্ঞান দাও।

সেলিনা শেলি। যুক্তরাজ্য