অটোয়া, শনিবার ১৬ অক্টোবর, ২০২১
নীরবতা - মুতাকাব্বির মাসুদ

তোমার সেঁওতির মতো ঠোঁটের স্পর্শ  
নিঃশব্দে স্তনিত হয় প্রতিদিন বোবা  রাতের নীরবতায় 
আমার বুকের ভেতর অনন্ত প্রহর 
এক প্রলম্বিত মৃত্যুর মতো- বন্ধ্যা সন্ধ্যা মিশে যায়
বাউরি বাতাসে কালোচোখ আলোর শরীরে 
স্তব্ধীভূত তোমার নিস্পন্দ চোখের 
গড়িয়ে পড়া শিশিরের ফোঁটা 
রাতভর আমি অনুভবের খাতায় জমা রাখি 
কিন্ত তোমাকে ছোঁয়েও দেখা হয় না! 
তবে তোমার ভালোবাসার স্তবক 
লাবনির কমনীয় উত্তাপ অনুভব করি- পাগলের মতো
উম খুঁজি ক্যাঙ্গারুর বুকের ভেতর পোষে রাখা উম
প্রতি ভোরে তোমার উদ্বেলিত উত্তাপ অনুভব করি 
সূর্যোদয় থেকে-অনঘ গোধূলির গোলাপি ঢেউ তুলা শরীরে পাখির ডানার নিচে লেলিহান প্রণয়ের পাণ্ডুলিপির 
নিরাবরণ শব্দিত উচ্ছ্বাস-অনত প্রণয়ী প্রত্যাগত সূর্যের আলিঙ্গনে -
এরপরও মন ভরে না 
তোমার প্রতনু শরীরের ভাঁজে  মল্লিকার পরিপাটি
তন্ময় হয়ে দেখি-এ দেখার তৃষ্ণা মেটে না
নৈদাঘ- নৈপুণ্য  ঈশ্বরের সর্বনাম নৈবেদ্য 
দুর্বোধ্য রাতের নীরবতায় 
কালোজামের মতো তোমার চোখ- জোছনার মতো 
মায়া ছড়ায় 
নির্বোধ কবি খোঁজে তোমার বুকের ভেতর,
চোখের ভেতর সান বাঁধানো দিঘির জলে
নীরবতার এক অতুল সৌন্দর্য! 

মুতাকাব্বির মাসুদ। সিলেট