অটোয়া, শনিবার ১৬ অক্টোবর, ২০২১
আবু আফজাল সালেহ'র কয়েকটি কবিতা

দুয়ে মিলে তুমি
বৃষ্টিধোওয়া মায়াবী জ্যোৎস্না।
জ্যোৎস্নার ঝাপট যেন
অনাবিল পরশ।
আফসানা মিমির টোলখাওয়া গালে
অনিন্দ্য হাসি
যেন মুক্তা ঝরে।

জ্যোৎস্নাঢেউ আর আফসানার হাসি
দুয়ে মিলে তুমি এই।

আমি রংধনু হয়ে মিশে যাব
রংচটা এক বিকেলে ঝাঁক ঝাঁক বৃষ্টি
তারপরেই স্বচ্ছ আকাশে রংধনু
হৃদয়ের রক্তক্ষরণ
তুমি আর ডেকো না আমার।

আমি আকাশের বিস্তীর্ণতায় বেঁচে থাকব
আমি রংধনুর সাতরং নিয়ে বেঁচে থাকব
বৃষ্টি ছুঁয়ে দেবে আমার
সূর্য এঁকে দেবে আমার।

মনীষা, তুমি চলে যাও এখনই
আমি রংধনু হয়ে মিশে যাব
আকাশে--দূরনীলিমার আলোয়।

ভালোবাসা অথবা বিষণ্ণতা
মার ভালোবাসার রঙ ছড়িয়ে পড়েছে
এই সংসারে
প্রজাপতির পা ছুঁয়ে রেণু ছড়াচ্ছে
প্রিজমের মতো সূর্যের পাপড়ি ছড়াচ্ছে
চারিদিকে --
আমার সত্তা মিশে যাচ্ছে ক্রমশঃ তার সঙ্গে।

টেমস নদীর তীরের তার স্বপ্ন মলিন যেন
জ্যোৎস্নারাতের একাকিনী চাঁদের মতো জেগে
বিষণ্ণতা গ্রাস করছে।

অথচ আমি কী আকুল ডুবে আছি
নোনাঢেউয়ে।

আবু আফজাল সালেহ
কবি ও প্রাবন্ধিক, চুয়াডাঙ্গা।