অটোয়া, শনিবার ২১ মে, ২০২২
ব্যস্ততা - মেহেনাজ পারভীন

নের ফুটপাতে অনবরত হোঁচট খাই;
মুখোমুখি আমি আর ব্যস্ততা।
হরিণের চোখ, ময়ূরের পেখম, উলঙ্গ রোদ, ঘাসের বিছানা দেখা হয় না!
ব্যস্ততা নামক কড়া মদ পান করেছি-
শেয়ারবাজার থেকে রাস্তার ভিখিরি পর্যন্ত।
ব্যস্ততাকে ঘিরে মনোযোগ বাড়ে;
দেশে বাবা-মা!
শুনে; কেয়ারটেকারকে বলি-হিমঘরে অতদিন রেখে লাভ নেই!
উচ্চাভিলাষ, রোবট সেজে চাঁদে এক পা; মঙ্গলগ্রহে এক পা, অন্যের সমালোচনা নিয়ে বেশ আছি।
ব্যস্ততা আমাকে তাড়িয়ে দেয়- হাসপাতাল থেকে, আদালত থেকে, ভালোবাসা ও মানবতা থেকে।
ব্যস্ততাকে সাথে নিয়ে হেঁটেই চলি-
যদি দেখা হয় গণতন্ত্র ও বিজয়ের সাথে।
অবশেষে দেখি-আমার নিজের কোন ঘর নেই;
পুরো বিশ্বে নামহীন অগণিত ঘর 
যার মাটি খুঁড়তে খুঁড়তে ক্লান্ত স্বেচ্ছাসেবী।
যে ঘর আমাকে চুম্বকের মতো টানে; আবার ধাক্কা মেরে ফেরত পাঠায়!

মেহেনাজ পারভীন,
দিনাজপুর, বাংলাদেশ।