অটোয়া, শুক্রবার ২০ মে, ২০২২
সো_ওম্’র কবিতা

অন্য প্রেম
রিচিত প্রেমে নাই বা পড়লাম,
শান্ বাঁধানো ঘাটে নাই বা বসলাম,
হাঁটবো না হয়, হাঁটু জলে ডোবা কোন রাস্তায়,
ঝড় জলের কাদায়,
হাতটা ধরে রাখবো তোর, কাঁকুড়ে লাল মাটির পথে,
ঝঞ্ঝা ঘেরা কোন রাতে,
সন্তর্পনে পার হয়ে যাব, তুই আমার, আমি তোর ভরসায়,
পার হবো নিদাঘ বিশ্বাসে, ঘন শ্রাবণের কোন বরসায়।।

পরিচিত প্রেমে নাই বা পড়লাম,
আলো ঝলমলে পথে নাইবা হাঁটলাম,
হাঁটবো না হয় একসাথে তোর মন খারাপের রাতে-
থাকবো বসে পাশে চোখের জলটা মোছাতে,
বুকখানা চেয়ে নিস যখন যেমন চাই আপন দাবিতে-
নিজের মত করে, চোখের জলটা শুকোতে,
উড়িয়ে দিস সবটুকু অভিমান উজাড় করে বুকটাকে-
থাকবে না কোন প্রতিদান, না কোন প্রতি আশা,
এ শুধু উভমুখী, উজাড় করে দেয়ার ভালোবাসা।।

পরিচিত প্রেমে নাই বা পড়লাম,
প্রতিদানে কিছু নাই বা চাইলাম,
এ প্রেম হোক বিশ্বাসের, নির্ঘুম রাতে আশ্বাসের,
দহন ক্ষনে নির্ঝরের, একাকীত্বে হোক ঝর্ঝরের,
ঘন বিষাদে সমব্যথী, মনোক্লেশে হোক ইরাবতী-
শেষ নিঃশ্বাসে যেন তোর ছোঁয়া পাই-
তোর বিশ্বাসে  না হয় আমি রয়ে যাই-
এতোটুকু প্রেম তো চাইতেই পারি, বেচে থাকা জীবনে,
তুইও থেকে যাস আমার বিশ্বাসে, নিঃশ্বাসে বা মরনে।।

জীবিত লাশের মিছিল
কিছুটা পাপবোধ লুকিয়ে আছে স্বেচ্ছামৃত্যুর হাতছানিতে,
লুকিয়ে আছে পাতক আত্মহত্যার নাগপাশে,
শুধু একটা অভিশঙ্কা মননে গেঁথে,
নিযুত মানুষে অযুত পুরুষ মিশে আছে জীবিত লাশে,
আজ ও মিশে চলেছে একটু একটু করে নীল বিষের ছোঁয়ায়,
গার্হস্থ্য নীলচাষের অনলে,
অনিয়ন্ত্রিত জিভের আঁচড়ে, হৃদভাঙ্গা শব্দের গরলে,
লাশ হয়ে ঘুরে বেড়ায় বাসে ট্রামে অফিসে বা রাস্তায়,
হাজার টন তামাক পোড়ায় জ্বলনের উপশমে,
ধোঁয়ার বরফে শীতলতা খোঁজে, দহন ভুলে মদিরায়,
স্বেচ্ছামৃত্যুকে পাশ কাটিয়ে রাত জাগে আরামকেদারায়।

কিছুটা পাপবোধ লুকিয়ে আছে স্বেচ্ছামৃত্যুর হাতছানিতে,
অনেকটা লজ্জা পালিয়ে যাওয়ার গ্লানিতে,
মুক্তির আকাঙ্ক্ষা প্রস্তরে ঢাকে পৌরুষ অহংকারে,
বহু নিখর্ব লাসের মিছিল মহাপদ্ম পুরুষের ভিড়ে,
জীবন বয়ে চলেছে পুরুষ জীবন্ত জীবাশ্ম হয়ে-
বয়ে চলেছে শতাব্দীর দায়ভার কাঁধে নিয়ে,
নিরশ্রু ক্রন্দনে হাপর কেঁপেছে শত যোজন পথ হেঁটে,
চোখের জল ও মেলেনি মনটাকে ধুয়ে দিতে,
নীলকন্ঠ হৃদয়টাকে অমলিন করে নিতে,
কালাতিপাত এ অভয় দিয়ে নিজেকে সহন কুড়িয়েছে কত,
রেখেছে থরে থরে বুকের গভীরে হৃদয় যন্ত্রনা যত-
মহাপাতক এর ভয়ে পালাতে পারেনি সয়ে চলে নিরবধি,
অতিপৃক্ত বিষে সম্পৃক্ততা হারিয়ে স্তব্ধ হৃদয়‌ই নিয়তি,
দহনের বাতি সহনে ঢেকে হেঁটে যায় ধীরে ধীরে,
বহু নিখর্ব লাসের মিছিল মহাপদ্ম পুরুষের ভিড়ে।।

সো_ওম্
ত্রিপুরা, ভারত