অটোয়া, শনিবার ২১ মে, ২০২২
কান্তলৌহের চিত্তবিকার - এম এ ওয়াজেদ

(ভাষ শহিদদের স্মৃতির উদ্দেশ্যে)

চিত্তরঞ্জিনী!  
থেমে গেছে জলস্রোত অথবা জলস্ফীতি 
শুকিয়ে গেছে জলভূমি অথবা জলাশয় 
চিত্ততবিকারের মীমাংসিত তুষারমৌলি তুষ্ণীম্ভূত 
অক্রিয় মৌলিক গ্যাস নিয়নের প্রহেলিকায় 
প্রেমের ভক্তিগ্রন্থ বিহ্বলতার মুগ্ধ পাঠক৷

ভস্মাচ্ছন্ন ভস্মস্তূপ প্রেমের আঘাতে ভস্মসাৎ 
প্রদর্শিত কপট মঞ্চায়নে জুলুমের মূর্খতা 
চিত্তরঞ্জিনী! 
সাতচল্লিশের সেই অভিশপ্ত ভলিউম খুলে দেখ 
আমার স্বাক্ষরিত তালাকনামা দেখতে পাবে 
তোমার কী মনে পড়ে লাহোর প্রস্তাবের?
নাতিশীতোষ্ণ শীৎকারে তোমার গর্ভাশয় বন্ধ্যা৷

সেদিন রমনার বটমূলে-
বিশ্ববেহায়ার বিশ্বাসঘাতী নগ্নতা দেখে 
কৃষ্ণচুড়ার ফুলগুলো রোদন করেছিল 
চিত্তরঞ্জিনী! 
তোমার দন্তবিকশিত ক্রুর হাসি যেন নৃত্যপটীয়সী 
ঐ সালাম বরকত জব্বারের নিষ্পাপ আত্না 
হাজারো ব্যথার ফুল হয়ে 
আজো তোমাকে ঘৃণা করে৷

চিত্তরঞ্জিনী!
বুলেটের ঘূর্ণাবর্তে ভাঙেনি প্রেমের গর্গরী 
সত্যায়িত খসড়ালিপি মহিমার এপিটাফ 
তোমার অভিনীত মঞ্চ নাটকের সব অঙ্ক 
কেমন যেন মিথ্যা অভিব্যক্তির আত্নপীড়ন 
বিশ্বাস করো- 
আমার মায়ের বুলি বিশ্বমৈত্রীর সরাবন তহুরা ৷৷

এম এ ওয়াজেদ
নওগাঁ সদর , নওগাঁ