অটোয়া, শনিবার ২১ মে, ২০২২
একুশের কবিতা - পার্থ সারথী চৌধুরী

মায়ের ভাষা
নিঃসঙ্গতাকে সঙ্গী করে  
রাতের নির্জন সময় কটাই।  
কথা বলি ঝরা কুয়াশার সাথে  
দূর আকাশে উড়ে চলা পাখিদের  
কথোপকথনের ভাষা একান্তে শুনি। 
নিঃসঙ্গতার ভাষা নিঃশঙ্ক কথা  
নির্জনতার ভাষা নিশ্চুপ কথা  
পাখিদের ভাষা নিসঙ্কোচ কথা
আমার ভাষা আমার মায়ের ভাষা  
অবারিত ভাষা বাংলা ভাষা।    

একুশের ভাবনা
কুশ মানে মুখের বুলি   
একুশ মানে রং এর তুলি  
একুশ মানে সাজ পোশাক  
একুশ মানে নিজের প্রকাশ। 
একুশ মানে ফাগুন সাজ  
নতুন দিনে পুরানো আওয়াজ  
একুশ মানে অতীত স্মরণ 
সকাল বেলার আনন্দ ভ্রমণ। 
একুশ মানে নতুন চেতন  
সাজবো আমি মনের মতন।  
একুশ মানে       
স্মৃতিকে বললাম --- 
আমি বায়ান্ন দেখিনি একাত্তর দেখেছি  
আমি যুদ্ধে যাইনি মিছিলে গিয়েছি  
আমি সান্ত্বনা দেইনি সান্ত্বনা পেয়েছি। 
আমার চোখে স্বপ্ন ছিল, আশা আছে  
'৫২র ভাবনাগুলো ভেসে যাবেনা  
কালের স্রোতে, মিলাবে না সময়ে  
নতুনের আবাহনী একুশে ফেব্রুয়ারি 
কখনও হবে না ফাল্গুনের একুশ।

পার্থ সারথী চৌধুরী। সিলেট