অটোয়া, শনিবার ২৭ নভেম্বর, ২০২১
মোঃ আইনাল হক দু'টি এর কবিতা

একটা চাকরি চাই
কটা চাকরি চাই জীবনের জন্য, 
দীর্ঘদিনের বুভুক্ষু পেটটাকে একটু অন্ন দিতে চাই, 
হাড্ডিসার দেহটাকে সামান্য সবল করতে চাই। 
প্রতিক্ষারত নিঃসম্বল পরিবারের
মুখে হাসি ফোটাতে, বুকে স্বপ্ন দেখাতে
একটা চাকরি চাই। 
হোক সেটা সকাল সন্ধ্যা সরকারের তাবেদারি
 অথবা চব্বিশ ঘণ্টা কোন মালিকের গোলামী।
হতাশাগ্রস্ত মনটাকে সান্ত্বনা দেয়া বড় প্রয়োজন, 
মনের অপমৃত্যু যে আর সহ্য হয় না।

একটা চাকরি চাই ! 
সামাজিক জীবন ব্যবস্হায় আমিও 
একটা জীব তা প্রমানের জন্য,
নাগরিক অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য 
কর্মসংস্থানের যে কোন বিকল্প নেই। 

একটা চাকরি চাই! 
প্রতীক্ষারত প্রিয়তমার কপালে 
একবিন্দু লাল সিঁদুরের জন্য, 
তাছাড়া যে রক্ত দিয়ে ললাট রাঙাতে হবে! 
প্রেমের অধিকার সে ছাড়বে কেন? 

একটা চাকরি চাই! 
বহু কষ্টে অর্জিত শিক্ষার যতসামান্য প্রতিদান স্বরুপ 
সামাজিক দায়বদ্ধতা নিরসনের জন্য 
নামমাত্র হলেও একটা কর্মসংস্থান 
বড়ই প্রয়োজন।।

চলুন বদলে যাই
কি মশাই! বন্ধ হচ্ছে কামাই? 
কি করবেন বলুন, বদলে যাচ্ছে সময়, 
আসুন ধান্দা ছাড়ি, নিজেকে বদলাই।
অনেক তো হল;
গুনে গুনে পঞ্চাশ বছর 
আর কত? বসেছে উপযুক্ত আসর 
নিজেকে রাখবো না এতটুকুও দোসর। 

কি দাদা!জেনে অবাক হলেন?
কিছু তো একটা বলেন। 
কি করবেন এত প্রতিপত্তি? 
আর কত নিবেন যত্ন আত্তি। 
সাধারণ মানুষদের ভাবুন একবার 
বিবেকের কাছে কত হবে হার? 

কি সাহেব! মনে অসৎ বাসনা? 
ভাবছেন ভালো হবে কি না, 
ধুর,ছাড়ুন তো;
শেষ পর্যন্ত ঐ একটাই তো ঠিকানা। 
টিকে থাকবেন, তাই বলে 
অন্যের মাথায় ভেঙে কাঁঠাল? 
আপন দায়বদ্ধতা ভুলে 
ক্ষমতার মোহে হয়ে উঠবেন মাতাল? 

কি ভাবছেন! আত্মার পরিশুদ্ধি আসবে কবে? 
পার্শ্ববর্তী সবাই সুনাগরিক হল 
আমাদের কবে হবে? 
আহা, এত আপত্তি কিসের, 
অনিয়ম আর অন্যায় রুখে  
অভিযান হোক বাতিল নাশের।
আসুন, আপনাকে উৎসর্গ করি দেশের জন্য, 
সম্মিলিত প্রচেষ্টায় মাতৃভূমিকে করি ধন্য।

মোঃ আইনাল হক 
নওগাঁ, বাংলাদেশ