অটোয়া, শনিবার ১৬ অক্টোবর, ২০২১
বিশ্বাসের দীর্ঘশ্বাস - দেওয়ান সেলিম চৌধুরী

জীবনের চেয়ে বিশ্বাস বড় 
   বিধাতার চেয়ে ধর্ম 
যুগে যুগে তাই করিছে সবাই
   বিবেক বিহীন কর্ম। 
সতীদাহ প্রথা,ভুলিলো তথা
   বিধাবারও আছে জীবন। 
মৃত স্বামীর চিতায় পুড়ালো
    বিধাতার দেওয়া ধন।
অল্প বয়সে পাওয়া, স্বপ্নের ঘর 
আশ্রয়ে ভালই ছিল, নিয়ে বৃদ্ধ বর। 
দেবতা হারায়ে যখন,জীবন অন্ধকার 
অভাগীকে কেউ টানে নাই বুকে,
    শুধু ছেড়েছিল হুংকার। 
এখনই তাকে  চিতায় তুলো,
      আদেশ বিধাতার।
চিতার আগুনে কিশোরী  জ্বালিলো
      ব্রাহ্মণ দিল উলি
বিশ্বাসকে,বিধাতা জ্ঞানে
      অবলাকে দিল বলী
ফেরাও জানিত বিশ্বাসে আসে  
নিজের শরীরে আত্মা। 
মমী দিয়ে তাই, বাধিলো শরীর
        আজো  আত্মার নাই পাত্তা। 
ফেরাও হয়ত বসে আছে চেয়ে পথ
ক্রীতদাস আসি করিবে সেবা
ঠেলিবে তাদের রথ।
বিশ্বাসের একি নির্মম পরিহাস
মিথ্যা বিশ্বাসে করিল খুন,কত ক্রীতদাস
কালিমায় কলঙ্কিত, বিশ্বাসের ইতিহাস। 
এখন দেখি পৃথিবীর জাদুঘরে, 
ফসিলের মত মাটিতে রয়েছে পড়ে
আত্মা তোমায় পাইনি খুঁজে, 
       হাজার বছর ধরে। 
সবাই তোমায় দেখিতেছে আর
 ভাবিতেছে মনে মনে,
কোন বিশ্বাসে হয়েছিলে মমি
     সে কোন কু-ক্ষণে? 
প্রকৃতি বরং করিছে বরণ, 
       ছিল যত ক্রীতদাস
তোমাদের  মত মমি বানায়ে 
       করে নাই উপহাস।

দেওয়ান সেলিম চৌধুরী। অটোয়া