অটোয়া, রবিবার ২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০২০
পরের জন্মে - মৈত্রেয়ী সিংহরায়

রের জন্মে দেখা হলে প্রথম থেকেই
আমরা দুজন প্রেমে পড়বো।
মনে থাকবে?
বুকের দরজা হাট করে খোলা থাকবে
ভালোবাসা কুড়িয়ে নেব।
মুখোমুখি বসব দুজন;
হঠাৎ তোর হাতের ছোঁয়ায়
তারারা সব উঠবে জেগে
ফুলের পাপড়ি ছুঁড়ে দেবে
তখন আমি চাঁদের জলে ভিজে ভিজে
মদির চোখে থাকব চেয়ে।
মনে থাকবে?

এজন্মের অভিমানটা
পরের জন্মে মিটিয়ে নেব
এজন্মের ঘামের গন্ধ
পরের জন্মে পাই যেন।
এজন্মের পাগলামিটা
পরের জন্মে থাকে যেন।
মনে থাকবে?
আমি হব রজনীগন্ধা
একমুঠো সুবাস ছড়িয়ে দেব।
দাম্পত্য জটিলতা 
সবার আগে ঘুচিয়ে দেব।
তুই রাগলে জড়িয়ে ধরে
এক নিমেষে সবটুকু রাগ ভাঙিয়ে দেব।
মনে থাকবে?

পরের জন্মে পাখি হব
তোকে নিবিড় করে পাবার জন্য
অদম্য এক তৃষ্ণা নিয়ে
তেপান্তরের মাঠ পেরিয়ে
ধূ ধূ কোন নির্জনতা খুঁজে বেড়াবো।
মনে থাকবে?
আর কিছু হ‍ই বা না হ‍ই
পরের জন্মে গোলাপ হব
আকাশ ভরা জ‍্যোৎস্না হব
পড়ন্ত বেলার সূর্য হব
শর‍ৎকালের সকাল দেখার
উঠোন ভরা শিউলি হব
এসব কিছু হ‍ই বা না হ‍ই
তোর প্রথম নারী হব।
মনে থাকবে?

তুইও হবি বর্ষার আকুল করা মেঘ
দিনভর বৃষ্টিতে ধুইয়ে দিবি
আমার সমস্ত অহংকার
তোর মুঠোয় ভরা বৃষ্টি
আমাদের দূরত্বকে ঘুচিয়ে দেবে।

বুকে জমাট কান্না ছিল
তোকে তা দেখানো হল না।
মনে অনেক কষ্ট ছিল
কোনো এক জ‍্যোৎস্না রাতে আকুল হয়ে
তোকে তা বোঝানো গেল না।
এজন্ম তো চলেই গেল
সম্ভবে অসম্ভবে।
পরের জন্মে একবার,
শুধু একবার
নাম ধরে ডাকবি,
শহরের যে কোনো রাস্তায়
আমি রিক্সা থামিয়ে নেমে পড়বো
মিলিয়ে নিস্।
পরের জন্মে এলোপাথাড়ি
ভালোবাসার কথা বলতে বলতে....
বলতে ভীষণ লজ্জা করছে
ভীষণ ভীষণ লজ্জা করছে
পরের জন্মে......
মনে থাকবে?

মৈত্রেয়ী সিংহরায় । মেমোরি, বর্ধমান