অটোয়া, বুধবার ১৯ জুন, ২০২৪
বিরহ - তন্ময় পালধী

সেই পাহাড়টা এখনও তেমন চুপ,
ধ্যানী পদতলে অঙ্গীকারের ভাষা, 
নির্বাক যত অসীম তারার তলে,
অকথিত সেই কষ্ট হয়নি বোঝা।

সেই মেঠো পথ আলজুড়ে হাতছানি-
বিকেল হলেই চেনা গন্ধের সুর,
হারিয়ে যেতাম একছুটে ওইখানে, 
কাছেই তো মাঠ তবুও তা বহুদূর!!

এলোচুল খোলা, জানলার পাশে তুই,
আমিও চাতক, ফুরসতটুকু পেলে -
ইশারাটা ঠিক পৌঁছে দিতাম তোরে,
কথার নৌকা, ঠিক দিত পাল তুলে।

তারপর যত প্রলাপ কথার ঢেউ,
অনবরত ছুঁয়ে যেত মনোভূমি,
জাগতিক এই নগর,বসতি, ছুঁয়ে,
সেকথার যেন উৎস মুখটা আমি।

সেদিন তোর আসতে একটু দেরি,
মন-দিন থেকে সূর্য গিয়েছে পাটে,
তোর উচাটন মনের ভাষাটা পড়ে,
বসে আছি আমি বিরহের ফেরিঘাটে।

তন্ময় পালধী
হুগলী, ভারত